عن عائشة رضي الله عنها قالت: كان خُلُقُ نَبي اللِه صلى الله عليه وسلم القرآن.
[صحيح] - [رواه مسلم في جملة حديثٍ طويلٍ]
المزيــد ...

আয়েশা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহা থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, ‘নবী সাল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়াসাল্লামের চরিত্র ছিল কুরআন।’
সহীহ - এটি মুসলিম বর্ণনা করেছেন।

ব্যাখ্যা

অর্থাৎ তিনি কুরআনের গুণে গুণান্বিত হতেন। কুরআন যার আদেশ করেছে সেটা তিনি পালন করেছেন আর যেটা নিষেধ করেছেন সেটা থেকে তিনি বিরত থেকেছেন। চাই তা আল্লাহর ইবাদতের ক্ষেত্রে হোক বা আল্লাহর বান্দাদের সাথে লেনদেনের ক্ষেত্রে হোক। বস্তুত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের চরিত্র ছিল কুরআন বাস্তবায়ন করা। এ হাদীসে উম্মুল মুমিনীন আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা থেকে এ কথার প্রতি ইঙ্গিত করা হয়েছে যে, আমরা যদি রাসূলের চরিত্রে চরিত্রবান হতে চাই আমাদের জন্য জরুরি হলো, আমরা যেন কুরআনের চরিত্রে চরিত্রবান হই। কারণ, কুরআনই হলো রাসূলের চরিত্র।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি তাগালোগ ইন্ডিয়ান ভিয়েতনামী সিংহলী উইঘুর কুর্দি হাউসা পর্তুগীজ মালয়ালাম তেলেগু সুওয়াহিলি তামিল বার্মিজ থাই জার্মানি জাপানিজ
অনুবাদ প্রদর্শন

ফায়দাসমূহ

  1. কুরআনের চরিত্রে চরিত্রবান হওয়ার ক্ষেত্রে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুকরণের প্রতি উৎসাহ প্রদান করা।
  2. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের আখলাকের প্রশংসা করা আর তা ছিল ওহীর আলোকবর্তীকা।
  3. ইসলামে আখলাকের মর্যাদার প্রতি সতর্ক করা। আর এটি হলো তাওহীদের কালিমার দাবিসমূহের একটি দাবী যা নেক আমলের প্রতি উদ্ভুদ্ধ করে।