عن أبي هريرة -رضي الله عنه- مرفوعاً: «الفِطرة خَمْسٌ: الخِتَان, والاسْتِحدَاد, وقَصُّ الشَّارِب, وتَقلِيمُ الأَظفَارِ, ونَتْفُ الإِبِط».
[صحيح.] - [متفق عليه.]
المزيــد ...

আবূ হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে মারফূ‘ হিসেবে বর্ণিত: “প্রকৃতিগত আচরণ পাঁচটি: খাতনা করা; লজ্জাস্থানের লোম কেটে পরিষ্কার করা; নখ কাটা; বগলের লোম ছিঁড়া; গোঁফ ছেঁটে ফেলা।”

ব্যাখ্যা

আবূ হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু বলেন, তিনি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছেন: দীন ইসলামের চরিত্র যা ওপর আল্লাহ মানুষকে সৃষ্টি করেছেন তা পাঁচটি। যে ব্যক্তি এ পাঁচটি চরিত্র অবলম্বন করল সে দীনের মহান চরিত্রগুলো বাস্তবায়ন করল। এ হাদীসটিতে উল্লিখিত পাঁচটি চরিত্র পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতারই অংশ যার জন্য ইসলামের আগমন। প্রথম: লিঙ্গের সামনের অংশের চামড়া কেটে ফেলা যা অবশিষ্ট থাকা দ্বারা নাপাকী এবং ময়লা একত্র হওয়ার সম্ভাবনা থাকার ফলে তাতে রোগ জীবাণু দেখা দিতে পারে। দ্বিতীয়: লজ্জাস্থানের আশ পাশে চুল কর্তন করা। চাই তা সামনের রাস্তার হোক বা পিছনের রাস্তার হোক। কারণ, এগুলোকে জায়গা মতো রেখে দেওয়া দ্বারা তা নাপাকীর সাথে সংমিশ্রণ হওয়ার সম্ভাবনা রাখে এবং অনেক সময় তা শরঈ পবিত্রতা অর্জনে বিঘ্ন সৃষ্টি করে। তৃতীয়: গোফ ছেঁটে ফেলা যা লম্বা করাতে আকৃতির পরিবর্তন হয় এবং তার পানের পর যে পান করবে সে তা অপছন্দ করবে। অধিকন্তু তা মজুসীদের সাথে সাদৃস অবলম্বন করা। চার: নখ কাটা। নখ না কাটলে তাতে ময়ল একত্র হয় এবং তা খাদ্যের সাথে মিশে যায় এবং রোগ জীবাণু সৃষ্টি হয়। এ ছাড়াও ফাঁকা জায়গা ডেকে থাকার কারণে অনেক সময় পরিপূর্ণ পবিত্রতা অর্জন বাধাগ্রস্থ হয়। পঞ্চম: বোগলের লোম উপড়ে ফেলা। যা অবশিষ্ট থাকাতে দুর্গন্ধ ছড়ানোর কারণ হয়।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্প্যানিশ তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি
অনুবাদ প্রদর্শন