عن معقل بن يسار -رضي الله عنه- مرفوعاً: «ما من عبد يَسْتَرْعِيْهِ الله رَعِيَّةً, يموت يوم يموت, وهو غاشٌّ لِرَعِيَّتِهِ؛ إلا حرَّم الله عليه الجنة».
[صحيح.] - [متفق عليه.]
المزيــد ...

মা‘কাল ইবন ইয়াসার রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে মারফূ‘ হিসেবে বর্ণিত, “কোনো বান্দাকে আল্লাহ তা‘আলা কোনো প্রজার ওপর শাসক বানালে, যেদিন সে মরবে সেদিন যদি সে প্রজার প্রতি ধোঁকাবাজি করে মরে, তাহলে আল্লাহ তার জন্য জান্নাত হারাম করে দিবেন।”
সহীহ - মুত্তাফাকুন ‘আলাইহি (বুখারী ও মুসলিম)।

ব্যাখ্যা

মা‘কাল ইবন ইয়াসারের হাদীসে প্রজাদের ধোঁকা না দিতে সতর্ক করা হয়েছে। আর সেটা হচ্ছে, “আল্লাহ তা‘আলা কোনো বান্দাকে যখন কোনো প্রজার দায়িত্বশীল বানান।” অর্থাৎ জনগণের দেখাশোনার দায়িত্ব তার ওপর অর্পণ করেন। যেমন, তাকে তাদের ভালো-মন্দ দেখার জায়গায় প্রতিষ্ঠিত করলেন এবং তাকে তাদের যাবতীয় কর্মের দায়িত্ব দিলেন। রা‘ঈ হচ্ছে: প্রজাদের যে দায়িত্ব অর্পণ করা হয় তার দেখভালকারী ও আমানতদার। “প্রতারক অবস্থায় যেদিন সে মরবে” অর্থাৎ তার প্রজাদের প্রতি খিয়ানত করা অবস্থায় মারা যাবে। আর যে দিন সে মরবে দ্বারা উদ্দেশ্য হলো, তার রূহ বের হওয়ার ও তার পূর্বের সময় যখন তাওবা কবুল করা হয় না। কারণ, খিয়ানত বা নিজের ত্রুটি থেকে তাওবাকারী এ ধরনের শাস্তির উপযুক্ত হয় না। যার শাসনে খিয়ানত পাওয়া যাবে চাই ক্ষমতা ব্যাপক হোক বা খাস হোক মহা সত্যবাদী ও সত্যায়িত (যার ওপর সর্বোত্তম সালাত ও সর্বাধিক পবিত্র সালাম) তাকে এ বলে হুমকি দেন যে, “তবে আল্লাহ তার জন্য জান্নাত হারাম করে দিবেন।” যদি খিয়ানত করা হালাল জানে অথবা তাকে প্রথম শ্রেণির লোকদের সাথে জান্নাতে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি তাগালোগ ইন্ডিয়ান কুর্দি হাউসা
অনুবাদ প্রদর্শন
1: কঠিন হুমকি সে সব দায়িত্বশীলদের জন্য যারা তাদের প্রজাদের বিষয়গুলোতে গুরুত্বারোপ করে না।
2: এ হাদীসটি শুধু প্রধান নেতা ও তার সহকর্মীদের সাথে খাস নয়। বরং এটি যাকে আল্লাহ তাআলা যাদের দায়ীত্বশীল বানিয়েছেন তাদের সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। যেমন, পিতা, মাদ্রাসার মুহতামিম ইত্যাদি।
3: এ প্রতারক যদি মৃত্যুর পূর্বে তাওবা করে তাহলে সে এ হুমকির আওতায় আসবে না।
4: বিচারকদের তাদেরকে তাদের অধীনস্থদের হকের ক্ষেত্রে দুর্বলতা প্রদর্শন করা, তাদের বিচার কাজে অবহেলা করা এবং তাদের হক নষ্ট করার ব্যাপারে সতর্ক করা হয়েছে।
5: জনগণের কল্যাণে সবোর্চ্চ চেষ্টা করা বিচারকদের ওপর ওয়াজিব। আর যে ব্যক্তি এ ক্ষেত্রে অলসতা করবে সফলকামীদের সাথে তার জান্নাতে প্রবেশ হারাম হয়ে যাবে।
6: ইসলামে বিচারকের মর্যাদার বর্ণনা।