عن أبي مالك الحارث بن الأشعري رضي الله عنه قال: قال رسول الله صلى الله عليه وسلم: «الطهور شطر الإيمان، والحمد لله تملأ الميزان، وسبحان الله والحمد لله تملآن -أو تملأ- ما بين السماء والأرض، والصلاة نور، والصدقة برهان، والصبر ضياء، والقرآن حجة لك أو عليك، كل الناس يغدو: فبائعٌ نفسَه فمُعتِقُها أو مُوبِقها».
[صحيح] - [رواه مسلم]
المزيــد ...

আবূ মালিক হারিছ ইবনুল আশ'আরী রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন: আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন: "c2">“পবিত্রতা ঈমানের অর্ধেক। “الحمد لله” মিযানকে পরিপূর্ণ করে দিবে এবং "c2">“سبحان الله والحمد لله” শব্দটি অথবা শব্দদ্বয়- আসমান ও জমিনের মধ্যবর্তী স্থানকে পরিপূর্ণ করে দিবে। সালাত হচ্ছে নূর। আর সদাকাহ হচ্ছে দলীল। সবর হচ্ছে আলো। আর "আল-কুরআন' তোমার পক্ষে অথবা বিপক্ষে প্রমাণ স্বরূপ। সকল মানুষই ভোর করে নিজেকে বিক্রি করে দেয়, অতঃপর সে তাকে মুক্ত করে অথবা তাকে ধ্বংস করে।”
সহীহ - এটি মুসলিম বর্ণনা করেছেন।

ব্যাখ্যা

আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উল্লেখ করেছেন যে, পবিত্রতা হচ্ছে ঈমানের অর্ধেক। এখানে তাহুর অর্থ তাতাহহুর (পবিত্রতা অর্জন করা)। বস্তুত "c2">“الطَهور” অর্থ এমন পানি যার দ্বারা পবিত্রতা অর্জন করা হয়। কিন্তু এখানে উদ্দেশ্য পবিত্রতা অর্জনের কার্যক্রম। তাহুর দ্বারা আরো উদ্দেশ্য করা হয় বাহ্যিক ও আভ্যন্তরীণ পবিত্রতা: বাহ্যিক পবিত্রতা হলো নাপাক থেকে পরহেয ও নাপাকি দূর করার মাধ্যমে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গকে পবিত্র করা। আর আভ্যন্তরীণ পবিত্রতা হলো শিরক ও অন্তরের বিভিন্ন রোগ থেকে অন্তরকে পবিত্র করা। ঈমানের অর্ধেক: অর্থাৎ- সালাতের অর্ধেক; কেননা সালাত পবিত্রতা ব্যতিরেকে প্রত্যাখ্যাত হয়। তিনি আরো উল্লেখ করেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ’ মিযানকে পূর্ণ করে দেয়। ‘আলহামদুলিল্লাহ’ হলো আল্লাহ তা‘আলার মহব্বত ও বড়ত্বসহ তাঁর পরিপূর্ণ গুণাবলী ও মহান বিশেষণাবলী দ্বারা আল্লাহর প্রশংসা করা। এটি মিযানকে পূর্ণ করে দেয়, যা দিয়ে আমলসমূহকে ওজন করা হবে। আর ‘সুবহানাল্লাহ’ হলো আল্লাহ তা‘আলাকে এমন সকল প্রকার দোষ-ত্রুটি থেকে যা তাঁর জন্য উপযোগী নয় এবং মাখলুকের সাথে সামঞ্জস্যতা থেকে পবিত্র করা। ‘সুবহানাল্লাহ ও আল-হামদুলিল্লাহ’ বাক্য দু’টি অথবা বাক্যটি—বর্ণনাকারী থেকে সন্দেহ—পাঁচশত বছর সফরের দূরত্ব আসমান ও যমীনের মধ্যবর্তীকে পূর্ণ করে দেয়। কেননা আল্লাহর অনুগ্রহ সীমাহীন। আর সালাত হচ্ছে নূর: এটি দুনিয়াতে নূর এবং বান্দার জন্য কিয়ামাতের দিনেও নুর। আর সাদাকাহ হচ্ছে দলিল: অর্থাৎ দানকারী ব্যক্তির ঈমানের সত্যতার উপরে অকাট্য দলিল; কেননা অন্তরসমূহকে সম্পদের ভালোবাসার উপর সৃষ্টি করা হয়েছে। কাজেই অন্তরের সন্তুষ্টিসহ এই মালকে ব্যয় করা নিঃসন্দেহে মানুষের ঈমানের সত্যতার উপরে অকাট্য দলিল এবং সুস্পষ্ট প্রমাণ। সবর তার তিনটি প্রকারসহ হলো আলো, আনুগত্যের উপর সবর করা, পাপ থেকে সবর করা আর কষ্টদায়ক তাকদীরের উপর সবর করা। এটি এমন আলো যা তার সঙ্গীর পথকে আলোকিত করে। আর আল-কুরআন তোমার পক্ষে অথবা বিপক্ষে প্রমাণ। কুরআন হচ্ছে আল্লাহর কালাম যা নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের উপরে জিবরীল ‘আলাইহিসি সালামের মাধ্যমে নাযিল করা হয়েছে, যা দুইটি মলাটের মধ্যে সংরক্ষিত। যে ব্যক্তি তা তেলাওয়াত করে, সে যেন রহমান তথা আল্লাহর সাথেই কথা বলে। আর কুরআন হয়তো তোমার পক্ষে দলিল হবে, যখন তুমি মুমিন ও তার ভিতরে যা কিছু আছে সব কিছুকে সত্যায়নকারী হবে, তার আদেশসমূহকে মেনে চলবে এবং তার নিষেধসমূহ থেকে দূরে থাকবে। এর দ্বারা কিয়ামতের দিন কুরআন তোমার পক্ষের দলিল হবে। অথবা তোমার বিরুদ্ধে দলিল হবে, যদি তুমি তাকে গ্রহণ করো, তাকে মুখস্ত করো অথচ তুমি তার থেকে গাফিল হয়ে থাকো। সালাত আদায়ে গাফিল হয়ে থাকো অথবা এমন কর্মকাণ্ড করো যা তার আদেশ-নিষেধের বিরুদ্ধে যায়, তাহলে কুরআন তোমার বিপরীতে দলিল হবে। প্রতিটি মানুষ ভোর করে, অর্থাৎ প্রত্যেকটি মানুষ যখন ভোরে উপনীত হয় তখন রিজিকের সন্ধানে যমীনে ছড়িয়ে পড়ে, কিন্তু কিছু মানুষের সকালে বের হওয়া হয় তার কল্যাণের জন্য আর কিছু মানুষের সকালে বের হওয়া হয় তার উপর বিপদস্বরূপ। আর প্রত্যেকেই নিজকে বিক্রি করে দেয়, অর্থাৎ নফসকে কাজে ব্যাপৃত করে, হয়তো সে আল্লাহর দিকে নিজেকে বিক্রি করে, ফলে সে নিজের নফসকে আগুন থেকে মুক্ত করে। অথবা সে শয়তানের দিকে নিজেকে বিক্রি করে, পাপ এবং অন্যায় ও মন্দ কাজের মাধ্যমে, ফলে সে নিজেকে জাহান্নামে ধ্বংস করে।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি ইন্ডিয়ান ভিয়েতনামী সিংহলী উইঘুর কুর্দি হাউসা পর্তুগীজ মালয়ালাম তেলেগু সুওয়াহিলি তামিল বার্মিজ থাই জার্মানি পশতু অসমীয়া আলবেনি السويدية الأمهرية
অনুবাদ প্রদর্শন

হাদীসের শিক্ষা

  1. এটি নবী আলাইহিস সালাতু ওয়াসসালামের জাওয়ামি‘উল কালিমের (অর্থাৎ অল্প কথায় বেশী অর্থ প্রকাশ করার) অন্তর্ভুক্ত।
  2. বাহ্যিক ও আভ্যন্তরীণ পবিত্রতা অর্জনের গুরুত্ব।
  3. আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা‘আলার যিকরের ফযীলত।
  4. আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা‘আলার রহমত যে, তিনি অল্প বাক্যে অনেক বড় সাওয়াব নির্ধারণ করেছেন।
  5. সালাত সংরক্ষণের গুরুত্ব, কেননা তা দুনিয়া ও কিয়ামাতের দিনে বান্দার জন্য নূর হবে।
  6. সাদাকাহ হচ্ছে ঈমানের সত্যতার দলীল।
  7. আল-কুরআনের উপরে আমল ও তাকে সত্যারোপ করার গুরুত্ব, যাতে তা তোমার পক্ষে দলিল হয়, তোমার বিপক্ষে নয়।
  8. প্রকৃত স্বাধীনতা হচ্ছে আল্লাহ তা‘আলার ইবাদাত আঞ্জাম দেয়া, নফস যা চায় তা করার জন্যে তাকে স্বাধীন ছেড়ে দেয়া স্বাধীনতা নয়।
  9. মানুষ ভাল অথবা মন্দ কোনো আমল অবশ্যই করে।
শ্রেণিবিন্যাসসমূহ
আরো