عن أبي هريرة -رضي الله عنه-: أن رسول الله -صلى الله عليه وسلم- قال: «لا تجعلوا بيوتكم مَقَابر، إنَّ الشيطان يَنْفِرُ من البيت الذي تُقْرَأُ فيه سورةُ البقرة».
[صحيح.] - [رواه مسلم.]
المزيــد ...

আবূ হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “তোমরা তোমাদের ঘরসমূহকে কবর বানাবে না। নিশ্চয় যে ঘরে সূরা বাকারাহ তিলাওয়াত করা হয় সে ঘর থেকে শয়তান পলায়ন করে।“
-

ব্যাখ্যা

আবূ হুরাইরাহ রাদিয়াল্লাহু সংবাদ দেন যে, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ঘরসমূহকে কবরস্থান বানাতে নিষেধ করেছেন, যাতে ঘরসমূহ যেন কবরের মতো না হয়, যেখানে সালাত ও কুরআন পাঠ হয় না। সালাত না থাকা অবস্থায় ঘরকে কবর বলা হয়েছে। কারণ, কবরে সালাত আদায় করা বৈধ নয়। তারপর নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সংবাদ দেন, যে ঘরের অধিবাসীরা তাতে সূরা বাকারাহ তিলাওয়াত করে সে ঘর থেকে শয়তান পলায়ন করে। কারণ, এ সূরার তিলাওয়াতের বরকতে এবং তাতে যা রয়েছে সে অনুযায়ী আমল করার কারণে শয়তান তাদের প্রতারণা দেওয়া ও গোমরাহ করা হতে নৈরাশ হয়ে যায়।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি ইন্ডিয়ান
অনুবাদ প্রদর্শন
1: সূরা বাকারাহর ফযীলতের বর্ণনা।
2: নিশ্চয় যে ঘরে সূরা বাকারাহ তিলাওয়াত করা হয় সে ঘর থেকে শয়তান পলায়ন করে। তার কাছে আসে না।
3: কবরসমূহের ওপর সালাত আদায় করা জায়েয নাই।
4: ঘরসমূহের মধ্যে বেশি বেশি নফল সালাত ও নফল ইবাদাত করা মুস্তাহাব।