عن سَمُرة بن جُنْدَب رضي الله عنه قال: قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : «أحب الكلام إلى الله أربع لا يَضُرُّك بِأَيِّهِنَّ بدأت: سُبْحَانَ الله، والحمد لله، ولا إله إلا الله، والله أكبر».
[صحيح] - [رواه مسلم]
المزيــد ...

সামুরা ইবন জুনদাব রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “চারটি বাক্য আল্লাহর নিকট অধিক প্রিয়। তুমি যে বাক্য দিয়েই শুরু কর তাতে কোনো ক্ষতি নেই। ১-সুবহানাল্লাহ, ২-আলহামদু লিল্লাহ, ৩-লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু, ৪-আল্লাহু আকবর।”
সহীহ - এটি মুসলিম বর্ণনা করেছেন।

ব্যাখ্যা

হাদীস দ্বারা চারটি বাক্যের বিশেষ ফযীলত প্রমাণিত হয়। বাক্যগুলোতে মহান কিছু বিষয় থাকার কারণে আল্লাহর নিকট তা মানুষের সবচেয়ে প্রিয় কথা। বিষয়গুলো হলো, বাক্যগুলোতে রয়েছে, আল্লাহর পবিত্রতার বর্ণনা, তার জন্য প্রয়োজনীয় পরিপূর্ণতার গুণগুলো সাব্যস্ত করা। একত্ববাদ ও বড়ত্বকে কেবল তার জন্য সাব্যস্ত করা। আর এ বাক্যগুলোর ফযীলত ও সাওয়াব লাভের জন্য ধারাবাহিকতা রক্ষা করে বলার কোনো প্রয়োজন নেই, যেমনটি হাদীসে এসেছে।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি তাগালোগ ইন্ডিয়ান ভিয়েতনামী সিংহলী কুর্দি হাউসা পর্তুগীজ মালয়ালাম তেলেগু সুওয়াহিলি তামিল বার্মিজ জার্মানি জাপানিজ
অনুবাদ প্রদর্শন

ফায়দাসমূহ

  1. হাদীস দ্বারা আল্লাহর জন্য মুহাব্বাত সাব্যস্ত করা হয়েছে। আর তিনি নেক আমলসমূহকে ভালোবাসেন।
  2. অন্যান্য বাক্যের ওপর এ চারটি বাক্যের মর্যাদা। এগুলো আল্লাহর কাছে অধিক প্রিয়।
  3. এ চারটি বাক্যকে আঁকড়ে ধরার প্রতি উৎসাহ প্রদান। কারণ, যখন কোনো বান্দা জানে যে, আল্লাহ কোনো বস্তুকে মহব্বাত করেন তখন সে তা আকড়ে ধরে এবং তার হিফাযত করে।
  4. মানুষের জন্য শরী‘আত খুবই সহজ। তুমি যে বাক্য দিয়ে শুরু করবে তাতে কোনো অসুবিধা নাই।
আরো