عن عبد الله بن مسعود -رضي الله عنه- مرفوعاً: "إن من شرار الناس من تُدركهم الساعة وهم أحياء، والذين يتخذون القبور مساجد".
[حسن.] - [رواه أحمد.]
المزيــد ...

ইবন মাসঊদ রাদিয়াল্লাহু থেকে মারফূ হিসেবে বর্ণিত, “যাদের জীবনকালে কিয়ামত সংঘটিত হবে এবং যারা কবরকে মসজিদে রূপান্তরিত করবে তারাই সবচেয়ে নিকৃষ্ট লোক।”
হাসান - এটি আহমাদ বর্ণনা করেছেন।

ব্যাখ্যা

নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম জানাচ্ছেন যে, যাদের জীবনকালে কিয়ামত সংঘটিত হবে তারাই সবচেয়ে নিকৃষ্ট লোক। আর তাদের একটি শ্রেণী হচ্ছে ঐ সকল লোক যারা কবরের কাছে এবং কবরমুখী হয়ে সালাত আদায় করে এবং কবরের উপর গম্বুজ তৈরি করে। এটি তাঁর উম্মতের জন্য সতর্কতা স্বরূপ। তারা যেন নবী ও সৎকর্মশীলদের কবরের কাছে এসব নিকৃষ্ট লোকের মতো কাজ না করে।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি তাগালোগ ইন্ডিয়ান কুর্দি হাউসা
অনুবাদ প্রদর্শন
1: “কিয়ামত সংঘটিত হওয়া সাব্যস্ত।
2: নিকৃষ্ট মানুষের ওপর কিয়ামত কায়েম হবে।
3: কবরসমূহের ওপর মসজিদ বানানো এবং তার পাশে সালাত আদায় নিষিদ্ধ। কারণ, মসজিদ হলো যাতে সেজদা করা হয় যদিও তাতে কোনো নির্মাণ না থাকে।
4: কবরের নিকট সালাত আদায় থেকে সতর্ক করা। কারণ, এটি শির্কের দিকে নিয়ে যায়।
5: যারা সালেহীনদের কবরসমূহকে সালাত আদায়ের জন্য মসজিদ বানায় তারা অবশ্যই সর্ব নিকৃষ্ট সৃষ্টি। যদিও তার উদ্দেশ্য আল্লাহর নৈকট্য লাভ করা।
6: শির্ক থেকে বেচে থাকতে হবে এবং যে সব জিনিস শির্কের কারণ হয় এবং শির্কের নিকটে পৌঁছায় তা থেকেও বেচে থাকতে হবে। এ ধরনের মাধ্যম গ্রহণকারীদের উদ্দেশ্য যাই হোক না কেন।
7: নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের একটি মু‘জিযা যে, তিনি কবরসমূহের ওপর নির্মাণ করা বিষয়ে যে সংবাদ দিয়েছেন তা বাস্তবে প্রতিফলিত হয়েছে।