عن أبي هريرة رضي الله عنه قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم: "لاَ يَقْبَل الله صلاَة أَحَدِكُم إِذا أَحْدَث حَتَّى يَتوضَّأ".
[صحيح] - [متفق عليه]
المزيــد ...

আবূ হুরায়রা রাদিয়াল্লাহ ‘আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,“তোমাদের কারো যখন হাদাস হয়, আল্লাহ তার সলাত কবূল করবেন না, যতক্ষণ না সে উযূ করে।”
সহীহ - মুত্তাফাকুন ‘আলাইহি (বুখারী ও মুসলিম)।

ব্যাখ্যা

প্রজ্ঞাময় শরীয়ত প্রণেতা নির্দেশা দেন যে, যে ব্যক্তি সালাত আদায়ের ইচ্ছা করে সে যেন সুন্দর ও মনোরম আকৃতি ছাড়া সালাতে প্রবেশ না করে। কারণ, সালাত রব ও তার বান্দার মাঝে একটি মজবুত বন্ধন। এটি আল্লাহর সাথে কথোপকথনের একটি পদ্ধতি। এ কারণেই তিনি তাকে সালাতের জন্য উযূ করা ও পবিত্রতা অবলম্বনের নির্দেশ দেন। আর তিনি জানিয়ে দেন যে, পবিত্রতা ছাড়া সালাত প্রত্যাখ্যাত ও কবুল হবে না।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি তাগালোগ ইন্ডিয়ান সিংহলী উইঘুর কুর্দি হাউসা পর্তুগীজ মালয়ালাম তেলেগু সুওয়াহিলি তামিল বার্মিজ জার্মানি
অনুবাদ প্রদর্শন

ফায়দাসমূহ

  1. সালাতের অবস্থান কতইনা মহান। আল্লাহ তা‘আ তা পবিত্রতা ছাড়া কবুল করেন না।
  2. অপবিত্র ব্যক্তির সালাত কবুল করা হবে না। যতক্ষণ না বড় নাপাক ও ছোট নাপাক থেকে পবিত্র না হয়।
  3. অপবিত্রতা অজু ভঙ্গকারী এবং সালাত বিনষ্টকারী যদি তা সালাতের মধ্যে হয়।
  4. এখানে কবুল না হওয়া দ্বারা উদ্দেশ্য সালাত শুদ্ধ না হওয়া ও যথেষ্ট না হওয়া।
  5. হাদীস থেকে বুঝা যায় কতক সালাত মাকবুল এবং কতক সালাত প্রত্যাখ্যাত। যে সালাত শরি‘আত অনুযায়ী হবে তা গ্রহণযোগ্য। আর যে সালাত শরী‘আত অনুযায়ী হবে না তা প্রত্যাখ্যাত। অনুরূপ সব ইবাদত। কারণ, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে কোনো আমল করল যার ওপর আমার নির্দেশনা নাই তা প্রত্যাখ্যাত।
  6. অপবিত্র ব্যক্তির সালাত ওজু না করা পর্যন্ত হারাম। কারণ, আল্লাহ তা কবুল করবে না। আল্লাহ যা কবুল করবে না তা দ্বারা আল্লাহর নৈকট্য লাভ করার আশা করা তার সঙ্গে বিদ্রোহ করার সামিল এবং এটি এক ধরনের বিদ্রূপ।
  7. যখন কোনো মানুষ একটি সালাতের জন্য অজু করল এ অবস্থায় যদি অপর সালাতের সময় হয়ে যায়, তখন যদি তার পবিত্রতা বাকি থাকে, তাহলে তাকে দ্বিতীয়বার ওজু করা প্রয়োজন হবে না।
  8. সালাত চাই ফরয হোক বা নফল হোক এমনকি জানাযার সালাত যদি কোন অপবিত্র ব্যক্তি ওজু ছাড়া পড়ে তা কবুল হবে না যদিও সে ভুলে আদায় করে। অনুরূপভাবে গোসল ফরয হওয়া ব্যক্তি যদি গোসল করার আগে সালাত আদায় করে, তার সালাত গ্রহণযোগ্য হবে না। ভুলকারীকে অবশ্যই আবার সালাত আদায় করতে হবে।
আরো