শ্রেণিবিন্যাস: ফযীলত ও শিষ্ঠাচার .

عن أبي الدرداء رضي الله عنه عن النبي صلى الله عليه وسلم قال: «مَنْ رَدَّ عَنْ عِرْضِ أَخِيهِ رَدَّ اللَّهُ عَنْ وَجْهِهِ النَّارَ يَوْمَ الْقِيَامَةِ».
[صحيح] - [رواه الترمذي وأحمد]
المزيــد ...

আবুদ দারদা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যে লোক তার কোনো ভাইয়ের মান-সম্মানের ওপর (তার অনুপস্থিতে) আঘাত প্রতিরোধ করবে, কিয়ামত দিবসে আল্লাহ তা‘আলা তার মুখমণ্ডল হতে (জাহান্নামের) আগুন প্রতিরোধ করবেন।”
সহীহ - এটি তিরমিযী বর্ণনা করেছেন।

ব্যাখ্যা

যে ব্যক্তি তার মুসলিম ভাইয়ের ইজ্জত হননকারী কোন কিছু প্রতিহত করে হাদীসে তার ফযীলত বর্ণনা করা হয়েছে। মজলিসে উপস্থিত কোন ব্যক্তি যখন কারো গীবত করে তাহলে তোমার ওপর দায়িত্ব হলো তোমার মুসলিম ভাই থেকে তা প্রতিহত করা, গীবতকারীকে চুপ করানো এবং অন্যায়ের প্রতিবাদ করা। আর যদি তুমি কোন প্রতিবাদ না করো তাহলে এটিকে মুসলিম ভাইয়ের অপমান করা ধরা হবে। এটি তার অনুপস্থিতিতে হওয়ার প্রমাণ হলো আসমা বিনতে ইয়াযিদ রাদিয়াল্লাহু `আনহার হাদীস তিনি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে বর্ণনা করেন, “যে ব্যক্তি তার ভাইয়ের অনুপস্থিতিতে তার গোস্ত থেকে কাউকে বিরত রাখে তবে আল্লাহর ওপর দায়িত্ব হলো তাকে জাহান্নাম থেকে আযাদ করবেন।” এটি আহমাদ বর্ণনা করেছেন, আর আলবানী হাদীসটিকে সহীহ বলেছেন।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি তাগালোগ ইন্ডিয়ান সিংহলী কুর্দি হাউসা পর্তুগীজ মালয়ালাম তেলেগু সুওয়াহিলি তামিল বার্মিজ থাই জার্মানি জাপানিজ
অনুবাদ প্রদর্শন

ফায়দাসমূহ

  1. এ সাওয়াব নির্দিষ্ট হলো সে সময়ের জন্য যখন কেউ কোন মুসলিম ভাইয়ের গীবত করলো তার অনুপুস্থিতে এবং সে তার প্রতিহত করল।
  2. সাওয়াব আমলের ধরণ অনুযায়ী হয়ে থাকে। যে ব্যক্তি তার ভাইয়ের ইজ্জত রক্ষা করে আল্লাহ তাকে জাহান্নাম থেকে দূরে সরিয়ে দেবে।
  3. জাহান্নাম সাব্যস্ত করা এবং কিয়ামত দিবস সাব্যস্ত করা।
আরো