عن ميمونة بنت الحارث -رضي الله عنها- قالت: "وَضَعتُ لِرسولِ الله -صلى الله عليه وسلم- وَضُوءَ الجَنَابَة, فَأَكفَأ بِيَمِينِهِ على يساره مرتين -أو ثلاثا- ثم غَسَل فَرجَه, ثُمَّ ضَرَب يَدَهُ بالأرضِ أو الحائِطِ مرتين -أو ثلاثا- ثم تَمَضْمَضَ واسْتَنْشَقَ, وَغَسَلَ وَجهَه وذِرَاعَيه, ثُمَّ أَفَاضَ على رَأسِه الماء, ثم غَسَل جَسَدَه, ثُمَّ تَنَحَّى, فَغَسَل رِجلَيه, فَأَتَيتُه بِخِرقَة فلم يُرِدْهَا, فَجَعَل يَنفُضُ الماء بِيَده".
[صحيح.] - [متفق عليه.]
المزيــد ...

মাইমূনাহ বিনত হারিস রাদিয়াল্লাহু আনহা বলেন: আমি আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জানাবাতের গোসলের জন্য পানি রাখলাম। তারপর দু’বার বা তিনবার ডান হাত দিয়ে বাম হাতের উপর পানি ঢাললেন এবং তাঁর লজ্জাস্থান ধৌত করলেন। তারপর তাঁর হাত মাটিতে বা দেয়ালে দু’বার বা তিনবার ঘষলেন। পরে তিনি কুলি করলেন ও নাকে পানি দিলেন এবং চেহারা ও দু’হাত ধৌত করলেন। তারপর তাঁর মাথায় পানি ঢাললেন এবং তাঁর শরীর ধুলেন। অতঃপর একটু সরে গিয়ে তাঁর দু’ পা ধৌত করলেন। অতঃপর আমি একখণ্ড কাপড় দিলে তিনি তা নিলেন না, বরং নিজ হাতে পানি ঝেড়ে ফেলতে থাকলেন”।

ব্যাখ্যা

হাদীসটিতে উম্মুল মু‘মিনীন মাইমুনাহ রাদিয়াল্লাহ আনহা বিনতু হারেস আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জানাবাতের গোসলের বিভিন্ন পদ্ধতির একটি পদ্ধতি বর্ণনা করেন। তিনি তার গোসলের জন্য প্রস্তুত করা স্থানে গোসলের পানি রাখলেন। তারপর তিনি দু’বার বা তিনবার ডান হাত দিয়ে বাম হাতের উপর পানি ঢাললেন এবং তারপর সে তাঁর লজ্জাস্থান ধৌত করলেন যাতে তার সাথে সম্পৃক্ত ময়লা পরিষ্কার হয়ে যায়। তারপর তাঁর হাত মাটিতে বা দেয়ালে মারলেন এবং দু’বার বা তিনবার ঘষলেন। তারপর তিনি কুলি করলেন ও নাকে পানি দিলেন এবং চেহারা ও দু’হাত ধৌত করলেন। তারপর তাঁর মাথায় পানি ঢাললেন এবং তাঁর অবশিষ্ট শরীর ধুলেন। অতঃপর একটু সরে গিয়ে অপর স্থানে পা ধুলেন, যা ইতিপূর্বে তিনি ধৌত করেননি। অতঃপর সে তার জন্য একখণ্ড কাপড়ের টুকরা নিয়ে আসলেন যাতে তিনি তা দিয়ে শরীর মুছে ফেলেন। কিন্তু তিনি তা নিলেন না, বরং নিজ হাতে পানি ঝেড়ে ফেলতে থাকলেন।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্প্যানিশ তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি
অনুবাদ প্রদর্শন