عن سلمان الفارسي -رضي الله عنه- أن رسول الله -صلى الله عليه وسلم- قال: «ثلاثة لا يُكَلِّمُهم الله، ولا يزكيهم، ولهم عذاب أليم: أُشَيْمِط زَانٍ، وعائل مُسْتَكْبِر، ورجل جعل الله بضاعته: لا يشتري إلا بيمينه، ولا يبيع إلا بيمينه».
[صحيح.] - [رواه الطبراني.]
المزيــد ...

সালমান ফারসী রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে মরফূ‘ হিসেবে বর্ণিত, “তিন শ্রেণির লোকদের সাথে আল্লাহ তা‘আলা [কিয়ামতের দিন] কথা বলবেন না, তাদেরকে [গুনাহ মাফের মাধ্যমে] পবিত্র করবেন না, বরং তাদের জন্য রয়েছে কঠিন শাস্তি। তারা হচ্ছে, বৃদ্ধ জিনাকারী, অহংকারী গরীব, আর যে ব্যক্তি আল্লাহকে তার ব্যবসায়ী পণ্য বানিয়েছে অর্থাৎ কসম করা ব্যতীত সে পণ্য ক্রয় করে না, কসম করা ব্যতীত পণ্য বিক্রয়ও করে না।”
সহীহ - এটি তাবরানী বর্ণনা করেছেন।

ব্যাখ্যা

নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিন প্রকার পাপী সম্পর্কে সংবাদ দিচ্ছেন, যাদেরকে তাদের হীন অপরাধের জন্য কঠিন শাস্তি দেওয়া হবে। তাদের একজন হলো, বৃদ্ধ বয়সে উপনিত হওয়া সত্বেও ব্যভিচারে লিপ্ত হয়। কারণ, যেনার প্রেরণা তার ভেতর দুর্বল। এতে স্পষ্ট হয় যে, তাকে যেনায় উদ্বুদ্ধকারী আসল বস্তু হচ্ছে পাপ ও অন্যায় কর্মের মহব্বত। যদিও যেনা প্রত্যেকের ক্ষেত্রেই খারাপ, তবে সেটি এ প্রকার ব্যক্তির ক্ষেত্রে আরো বেশী খারাপ। দ্বিতীয়: মানুষের ওপর অহংকারকারী ফকীর। অহংকার যদিও প্রত্যেক ব্যক্তির ক্ষেত্রে নিন্দনীয় কিন্তু ফকিরের তো কোনো সম্পদ নেই যা তাকে অহংকারের দিকে আহ্বান করবে। সুতরাং কারণ না থাকা সত্বেও তার অহংকার দ্বারা প্রতিয়মান হয় এটা তার স্বভাব। তৃতীয়: যে ব্যক্তি আল্লাহর নামে কসম করাকে পণ্যে পরিণত করে, ক্রয়-বিক্রয়ের সময় অনেক বেশি কসম করে, ফলে সে আল্লাহর নামকে অবজ্ঞা করে এবং এটাকে সম্পদ কামাইয়ের মাধ্যম বানায়।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান চাইনিজ ফার্সি ইন্ডিয়ান উইঘুর কুর্দি হাউসা
অনুবাদ প্রদর্শন