عن أم عطية -رضي الله عنها- مرفوعاً: «لا تُحِدُّ امرأة على الميت فوق ثلاث، إلا على زوج: أربعة أشهر وعشرًا، ولا تلبس ثوبًا مَصْبُوغا إلا ثوب عَصْبٍ، ولا تكتحل، ولا تَمَسُّ طيبًا إلا إذا طهرت: نبُذة من قُسط أو أظْفَار».
[صحيح.] - [متفق عليه.]
المزيــد ...

উম্মে আতিয়্যাহ রাদিয়াল্লাহু আনহা হতে মারফু হিসেবে বর্ণিত, “মৃত ব্যক্তির উপর কোনো নারী তিন দিনের বেশী শোক পালন করবে না। তবে স্বামীর উপর চার মাস দশ দিন শোক পালন করবে। আর সে কোনো রঙিন কাপড় পরিধান করবে না। তবে সাদা-কালো কাপড় পরিধান করতে পারবে। সে সুরমাও ব্যবহার করবে না এবং সুঘ্রাণও ব্যবহার করবে না। তবে ঋতু থেকে পবিত্র হওয়ার সময় দুর্গন্ধ দূর করার জন্য সামান্য সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারবে।
সহীহ - মুত্তাফাকুন ‘আলাইহি (বুখারী ও মুসলিম)।

ব্যাখ্যা

এই হাদীসে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নারীকে কোনো মৃত ব্যক্তির ওপর তিন দিনের বেশী শোক প্রকাশ করতে নিষেধ করেছেন। কেননা আত্মীয়ের হক আদায় করা ও নিজের দুশ্চিন্তগ্রস্ত নফসকে শান্তনা দেওয়ার জন্যে তিন দিনই যথেষ্ট। তবে মৃত লোক যদি তার স্বামী হয়, তাহলে স্বামীর বিরাট হক আদায় করা ও ইদ্দতের সময় পরিচ্ছন্ন থাকার উদ্দেশে তার উপর চার মাস দশ দিন শোক পালন করা জরুরি।যে নারীর স্বামী বা নিকট আত্মীয় মারা গেছে তার শোক পালন করার অর্থ হচ্ছে সে সুগন্ধি, সুরমা, অলংকার ও সুন্দর কাপড় ইত্যাদি দ্বারা সাজ-সজ্জা গ্রহণ পরিত্যাগ করবে।সে এগুলো ব্যবহার করবে না। তবে স্বামী ব্যতীত কারো ক্ষেত্রে শোক পালন করা ওয়াজিব নয়। আর স্বামী ছাড়া অন্যদের জন্যে চাইলে তিন দিন শোক পালন করতে পারবে। শোক পালনকারী মহিলা সৌন্দর্য বিহীন রঙিন কাপড় পরিধান করতে পারবে। সেটা যে রঙেরই হোক না কেন। অনুরূপ ঋতু থেকে পবিত্র হওয়ার সময় তার লজ্জাস্থানে দুর্গন্ধ দূরকারী এমন জিনিস রাখতে পারবে, যা এ জায়গায় ব্যবহারযোগ্য সুগন্ধি নয়। তা ছাড়া লজ্জাস্থান সাজ-গুজ ব্যবহারের অঙ্গও নয়।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্পানিস তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি তাগালোগ ইন্ডিয়ান উইঘুর কুর্দি হাউসা পর্তুগীজ
অনুবাদ প্রদর্শন