عن الشعبي قال: كان بين رجل من المنافقين ورجل من اليهود خصومة فقال اليهودي: نتحاكم إلى محمد؛ لأنه عرف أنه لا يأخذ الرِشْوَةَ، وقال المنافق: نتحاكم إلى اليهود؛ لعلمه أنهم يأخذون الرِشْوَةَ، فاتفقا أن يأتيا كاهنا في جُهَيْنَةَ فيتحاكما إليه، فنَزلت: {أَلَمْ تَرَ إِلَى الَّذِينَ يَزْعُمُونَ أَنَّهُمْ آمَنُوا بِمَا أُنْزِلَ إِلَيْكَ وَمَا أُنْزِلَ مِنْ قَبْلِكَ يُرِيدُونَ أَنْ يَتَحَاكَمُوا إِلَى الطَّاغُوتِ...}.
[لم أجد له حكماً عند الألباني، وهو مرسل؛ لأن الشعبي تابعي، ولم يدرك القصة.] - [رواه ابن جرير عن الشعبي مرسلا.]
المزيــد ...

শা‘বী থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, একজন মুনাফিক এবং একজন ইহুদীর মধ্যে ঝগড়া হচ্ছিল। ইহুদী বললো, আমরা এর বিচার-ফয়সালার জন্য মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাছে যাবো। কেননা মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঘুষ গ্রহণ করেন না, -এটা তার জানা ছিল। আর মুনাফিক বললো, ফয়সালার জন্য আমরা ইহুদী বিচারকের কাছে যাব, কেননা ইহুদীরা ঘুষ খায়, -এ কথা তার জানা ছিল। অবশেষে তারা উভয়েই এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয় যে, তারা এর বিচার ও ফয়সালার জন্য জুহাইনা গোত্রের এক গণকের কাছে যাবে। তখন এ আয়াত নাযিল হয়: لَمْ تَرَ إِلَى الَّذِينَ يَزْعُمُونَ أَنَّهُمْ آمَنُوا بِمَا أُنْزِلَ إِلَيْكَ وَمَا أُنْزِلَ مِنْ قَبْلِكَ يُرِيدُونَ أَنْ يَتَحَاكَمُوا إِلَى الطَّاغُوتِ “আপনি কি তাদের প্রতি লক্ষ্য করেন নি, যারা ধারণা করে যে, আপনার প্রতি যা অবতীর্ণ হয়েছে এবং আপনার পূর্বে যা অবতীর্ণ হয়েছিল তৎপ্রতি তারা বিশ্বাস করে, অথচ তারা নিজেদের ফয়সালা তাগুতের নিকট নিয়ে যেতে চায়।” [সূরা আন-নিসা, আয়াত: ৬০]

ব্যাখ্যা

শা‘বী রাহিমাহুল্লাহ বর্ণনা করেন, এই আয়াত: “আপনি কি তাদের প্রতি লক্ষ্য করেননি, যারা ধারণা করে?” সে ব্যক্তি সম্পর্কে নাযিল হয় যে ঈমানের দাবি করতো। অথচ ন্যায় বিচার থেকে পলায়ন করে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ছাড়া অন্য ব্যক্তির কাছে বিচারের জন্য যেতে চাইলো। ত্বাগুতের কাছে বিচারের উদ্দেশ্যে গেলে যে ঈমান চলে যায় এর তোয়াক্কা না করে সে তাগুতের কাছে বিচার নিয়ে গেলো। এটি তার ঈমানের দাবিকে মিথ্যা সাব্যস্ত করে। সুতরাং যে ব্যক্তি এরূপ কাজ করবে তার হুকুম এরকমই হবে।

অনুবাদ: ইংরেজি ফরাসি স্প্যানিশ তার্কিশ উর্দু ইন্দোনেশিয়ান বসনিয়ান রুশিয়ান চাইনিজ ফার্সি
অনুবাদ প্রদর্শন